Election Commission New Rule On 5 State Assembly Election Rally Meetings In Amid Covid Surge

Election Commission New Rule On 5 State Assembly Election Rally Meetings In Amid Covid Surge


বিজেন্দ্র সিংহ, নয়া দিল্লি:  দেশজুড়ে ঊর্ধ্বমুখী করোনা সংক্রমণ। উত্তরপ্রদেশ সহ ৫ রাজ্যের প্রচারে কি আরও রাশ ? র‍্যালি, রোড শো নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আজ বৈঠকে বসেছিলেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার। সংশ্লিষ্ট রাজ্যের মুখ্যসচিব, স্বাস্থ্যসচিবদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। এরপরই জানিয়ে দেওয়া হয় নয়া নিষেধাজ্ঞা ও শর্তসাপেক্ষে ছাড়ের কথা।

কী জানান হয়েছে নির্বাচন কমিশনের তরফে? 

  • ‘২২ জানুয়ারি পর্যন্ত করা যাবে না কোনও র‍্যালি’
  • ‘৫ রাজ্যে ২২ জানুয়ারি পর্যন্ত নির্বাচনী র‍্যালিতে নিষেধাজ্ঞা’
  • ‘৪ দেওয়ালের মধ্যে সর্বাধিক ৩০০ জন নিয়ে করা যেতে পারে সভা’
  • ‘সভাকক্ষে ৫০ শতাংশের বেশি জমায়েত নয়’
  • ‘রাজনৈতিক দলগুলিকে মানতে হবে করোনা বিধি’

আরও পড়ুন, গঙ্গাসাগরের পর এবার রাজ্যে অন্য মেলাতেও ‘ছাড়’, নতুন নির্দেশিকা জারি রাজ্য সরকারের 

প্রসঙ্গত, ৫ রাজ্যের ভোট হবে ৭ দফায়। ১০ ফেব্রুয়ারি উত্তরপ্রদেশে (Uttar Pradesh) প্রথম দফার ভোট হবে।উত্তরপ্রদেশে সাত দফায় নির্বাচন হবে। শুরু হচ্ছে ১০ ফেব্রুয়ারি থেকে। চলবে ৭ মার্চ পর্যন্ত। পাঞ্জাব (Punjab) , উত্তরাখণ্ড ও গোয়ায় ভোট ১৪ ফেব্রুয়ারি, মণিপুরে ভোট ২৭ ফেব্রুয়ারি ও ৩ মার্চ। ভোট গণনা ১০ মার্চ। আগামী দুই মাসে ৬৯০টি বিধানসভা আসনে ভোটপ্রক্রিয়া চলবে। এর মধ্যে সবথেকে বেশি আসন রয়েছে উত্তরপ্রদেশে। সেখানে ৪০৩টি আসনে ভোটগ্রহণ হবে, পাঞ্জাবে রয়েছে ১১৭টি আসন, উত্তরাখণ্ডে ৭০টি, মণিপুরে ৬০টি এবং গোয়ায় ৪০টি আসনে ভোটগ্রহণ হবে।                                                         

  


এদিকে, রাজ্যে যে হারে করোনা বাড়ছে, সেই আবহে পুরভোট (Municipal Election) পিছনো যায় কি না তা জানতে চেয়ে শুক্রবারই রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে (State Election Commission) জানিয়েছিল হাইকোর্ট (Highcourt)। সূত্রের খবর, রাজ্য সায় দেওয়ার পরই কমিশনের তরফে জানান হয়েছে যে করোনার কারণে ৩ সপ্তাহ পিছিয়ে দেওয়া হচ্ছে ৪ পুরনিগমের ভোট।  ২২ জানুয়ারির বদলে ১২ ফেব্রুয়ারি পুরভোট হবে। ১৫ ফেব্রুয়ারি হবে ভোটের ফলপ্রকাশ। 



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: